মামাদের অধিনায়ক ঘোষিত হল!


অস্ট্রেলিয়া দল অবশেষে অধিনায়ক ঘোষিত করল। টি-টোয়েন্টি সিরিজে অস্ট্রেলিয়া তাদের দলের অধিনায়ক কে ঘোষিত করল দল ক্যাপ্টেন হিসেবে। দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক নির্ধারণ করেছে। দলকে নেতৃত্ব দেবেন ম্যাথু ওয়েড। অ্যারন ফিঞ্চ এখন ইনজুরিতে রয়েছেন তাই নেতৃত্ব দিতে পারবেন না। তাই বাংলাদেশ সফরে আসা হয়নি তার। ডেভিড ওয়ার্নার ও বাংলাদেশ সফরে আসেনি।
 
অ্যারন ফিঞ্চ ডান হাঁটুর ইনজুরি বেশ ভোগাচ্ছিল তাকে। তাইতো কদিন আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ চলাকালীন বার্বাডোজ থেকেই অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যান তিনি। পরে তার পরিবর্তে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন অ্যালেক্স ক্যারি। সিরিজটা অজিরা জয় করে নেয় ২-১ ব্যবধানে।
 
বোর্ডের আশা অক্টোবরে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই ফিরবেন ফিঞ্চ। তাকে ছাড়াই বাংলাদেশে এসেছে অজিরা। ৫ ম্যাচের টি টোয়েন্টি সিরিজে কে হচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার কাণ্ডারি? এ নিয়ে জল্পনা কল্পনা চলছিল গেল ক’দিন ধরেই। অবশেষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগেই অধিনায়কের নাম ঘোষণা করল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।
 
টাইগার বঁধে উইকেটরক্ষক ম্যাথু ওয়েডকেই অস্ট্রেলিয়া দলের অধিনায়কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব করার অভিজ্ঞতা আছে ওয়েডের। এর আগে ভিক্টোরিয়া, তাসমানিয়া ও হোবার্ট হ্যারিকেনের দলনেতা হিসেবে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা আছে ৩৩ বছর বয়সী ওয়েডের।
 
অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে ৪৩টি টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ওয়েড। ব্যাট হাতে করেছেন ৬১৩ রান। বাংলাদেশ সফরে নেই স্মিথ, ওয়ার্নারের মতো তারকা ক্রিকেটাররা। তাদের ছাড়াই টাইগারদের বিপক্ষে ভালো করার চ্যালেঞ্জ এখন ওয়েডের সামনে।
 

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি। সিরিজের বাকি চারটি ম্যাচ মাঠে গড়াবে ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট। ‘হোম অব ক্রিকেট` খ্যাত মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রতিটি ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টায়।
 
বাংলাদেশের ক্রিকেট দল কে কে খেলবে তা নিয়েও ঘোষণা দিল বিসিবি। ১ (আগস্ট) রোববার মধ্যরাতে বাংলাদেশ টিমে কে কে খেলবে তা ঘোষণা দিলেন বিসিবি।১৭ নিয়ে দল ঘোষণা দিল বিসিবি। জিম্বাবুয়ে সিরিজে যে কয়জন ছেলে ছিল সেই কয়জন খেলোয়ার খেলবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এটাই বললেন বিসিবি।
 
মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বে দলের বাকি সদস্যরা হলেন- সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাঈম শেখ, নুরুল হাসান সোহান, আফিফ হোসেন, শামীম হোসেন পাটোয়ারী, মোহাম্মদ সাইফউদিন, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেন ও শেখ মেহেদী।

0/Post a Comment/Comments